মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সার্কিট হাউস

সার্কিট হাউজের পটভূমি :

জেলার বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কার্যক্রম পরিচালনায় আগত রাষ্ট্রীয় অতিথিবৃন্দের সাময়িক অস্থানের জন্য সার্কিট হাউজ ব্যবহৃত হয়ে থাকে। ৩.৫৩ একর আয়তনে ৩ তলা বিশিষ্ট উক্ত ভবনটি ১৯৮৮ সনে উদ্বোধন  করা হয়। এখানে একটি টিন সেড ভবনও বিদ্যমান। তদানিন্তন ভারতের প্রধানমন্ত্রী জহরলাল নেহেরু একসময় এখানে অবস্থান করেন। প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশে উচু টিলায় জেলা সদরের কেন্দ্রস্থলে ইহা  অবস্থিত, যা সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করে।

নেজারত ডেপুটি কালেক্টরঃ ০১৫৫০-০৮৬১১১

জেলা নাজিরঃ ০১৭১১-০৭৩৯৯৭

  

আবাসন সুবিধা ও রুম ভাড়া  :

ফ্লোরের নম্বর

ক্রমিক নং

কক্ষনং

নাম

 

 

৩য় তলা

০১

ভিভিআইপি  স্যুট

শাপলা

০২

৩০৩

শিউলী

০৩

৩০৪

বকুল

০৪

৩০৫

দোলন চাঁপা

০৫

৩০৬

করবী

০৬

৩০৭

নীল পদ্ম

 

 

 

২য় তলা

০১

২০১

বেলী

০২

২০২

রজনীগন্ধা

০৩

২০৪

কামিনী

০৪

২০৫

জুঁই

০৫

২০৬

চামেলী

০৬

২০৭

শেফালী

০৭

২০৮

মালতী

০৮

২০৯

পলাশ

 

টিন সেড

০১

০১

হাসনাহেনা

০২

০২

সোনালু  

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এতদসংক্রান্তনির্দেশনা অনুযায়ী রুম ভাড়ার তালিকা   :

ক্র: নং

যাদের জন্য প্রযোজ্য

অবস্থান কাল

এক শয্যা বিশিষ্ট

দুই শয্যাবিশিষ্ট

১.

সরকারী কর্মকর্তা/ অবসরপ্রাপ্ত সরকারী কর্মকর্তা

১-৩দিন পর্যন্ত

২০টাকা

৪০টাকা

৩-৭দিন পর্যন্ত

৩০টাকা

৬০টাকা

৭দিনের উর্ধ্বে

১০০টাকা

২০০টাকা

২.

সংবিধিবদ্ধ সংস্থা/সেক্টর কর্পোরেশন/স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা

১-৩দিন পর্যন্ত

২৫টাকা

৫০টাকা

৩-৭দিন পর্যন্ত

৩৫টাকা

৭০টাকা

৭দিনের উর্ধ্বে

১১০টাকা

২২০টাকা

৩.

বেসরকারী ব্যক্তিবর্গ/কর্মকর্তা

থাকার সময় নির্বিশেষে

২০০টাকা

৪০০টাকা

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

আবাসন সুবিধা:

(১)মোট শয়ন কক্ষ: ১৬ (ষোল) টি

(২) ভিআইপি কক্ষ: ০৩ (তিন) টি।

(৩) এসি/ননএসি : এসি ০৮ (আট)টি, নন এসি ০৮ (আট)টি।

(৪) রুমের আসবাবপত্র :    রুমের আসবাবপত্র মানসম্মত।

(৫) রুমের অন্যান্য সুবিধা : প্রয়োজনে সাময়িকভাবে টেলিফোন সংযোজনের ব্যবসহা রয়েছে।নিরবচ্ছিন্নভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহের ব্যবস্থা রয়েছে। বিনোদনের জন্য একটি ফোয়ারা নির্মিত আছে।

 

অন্যান্য সুবিধা :

(১) কনফারেন্স রুম-ক্ষমতাসহ: ১০০ আসন বিশিষ্ট সভাকক্ষ রয়েছে।

(২) টিভি দেখার সুবিধা :           আছে।

(৩) ব্যাক-আপ জেনারেটর সুবিধা : নাই।

(৪) ইনডোর-আউটডোর খেলার সুবিধা: নাই।